গেম রিভিউ : পোর্টাল ২

ফিজিক্স যদি আপনার প্রিয় সাবজেক্ট হয়, আর আপনার মাথায় যদি পাগলামি বুদ্ধি গিজগিজ করে, তাহলে এই গেমটি আপনার জন্যে নিয়ে এসেছি রিভিউ সহ। এ গেমের লেভেল ডিজাইনার টিম আমার মতে ডেভেলপমেন্টের পরের এক মাস বিছানায় পড়ে ছিল মাথার ব্যথায়। এরকম জটিল গেম খুব কম খেলেছি।

সিলেটের এক ডিভিডির দোকানে প্রথম গেমটা দেখি। দেখে তেমন ভালো লাগেনি, কিন্তু আমার যে বন্ধুটি সাথে ছিল সে বলল, “এই গেম IGNএ ৯.৫ রেটিং পেয়েছে ১০ এর মধ্যে” জটিল ব্যাপার!! যে IGN রেটিং এর ব্যাপারে এত্তো কিপটা, সেই IGN এই গেমকে দিয়ে দিয়েছে সাড়ে নয়!!!!!

গেমের যে জিনিসটা সবচাইতে ভাল, সেটা হল গেমে টানা দশমিনিটও মুখ গোমরা করে রাখার উপায় নেই। গেমের ক্যারেকটারগুলো কথাবার্তাগুলোই সাজানো হয়েছে প্লেয়ারদের অনেক মজা দেয়ার জন্য। সব ক্রেডিট স্ক্রিপ্ট-রাইটারদের। আমার সেন্স অফ হিউমার একটু কম, তাই হাসি চেপে খেলেছি। কারো কারো হাহাপগে হতে পারে। আবার খুবই বেরসিক (যদিও বেরসিক গেমার এখনো দেখিনি আমি) কেউ জোকের মাথামুন্ডু না বুঝে সিরিয়াস ভাব নিয়ে খেলতে পারে।

এখন চলে আসি গেমপ্লে এর কথায়। এ গেম শেষ করতে হলে পাগলামি বুদ্ধি থাকা আবশ্যক। গেমে পোর্টাল গান ব্যবহার করে দেয়ালে এমন দুটি পোর্টাল খোলা যায়, যার একটি দিয়ে ঢুকলে আরেকটি দিয়ে বের হওয়া যায়। এই বন্দুক দিয়ে আর নিজের ব্রেন এর সাহায্যে দেখা যাবে আপনি কতদূর যান।

প্রথম কথা হল, সাধারন ফিজিক্স এর ব্যবহার। যত উপর থেকে পড়বেন, ততো জোরে পড়বেন। যত জোরে ধাক্কা খাবেন, ততো জোরে পিছিয়ে আসবেন। একটা পোর্টালে অনেক উপর থেকে পড়লে অন্যটা দিয়ে সেই গতিতে বেরিয়ে আসবেন। লেভেল ডিজাইনগুলো এতই অসাধারণ ছিল, যে শেষের দিকের লেভেলগুলোতে আমাকে খাওয়ার টেবিলে বসেও ভাবতে হয়েছে কী করা যায়!! আমার বাবা-মা অবাক হয়েছে আমার চিন্তা ভাবনা করা দেখেছেন, কারণ গেম বলতে তারা বোঝেন গুল্লি মারো-ধ্বংস কর। গেমে আবার চিন্তা করতে হয় নাকি!

এই গেমে অনেক চিন্তা করতে হয়। অনেক মাথা খাটাতে হয়। আমি এই গেম কমপ্লিট করেছি শুনে আমার বন্ধু জিবেশ এর কমেন্ট ছিল মনে রাখার মতো, “তুই অউ গেম শেষ করসস??? করলে কিলা??” ভাই করতে অনেক কষ্ট হয়েছে, লাভও হয়েছে আশা করি। জাফর ইকবাল স্যার এ একটা কথা দিয়ে শেষ করব,

“যদি তুমি কোন বিষয় নিয়ে একঘন্টা চিন্তা কর তোমার ব্রেন আর আগের মত নেই। সেটা একঘন্টায় কতটুকু পরিবর্তন হয়ে গিয়েছে তা তুমি কল্পনাও করতে পারবে না। ইউ হ্যাভ টু থিংক”

সব শেষে এ গেম খেলতে যা যা লাগবে :

মাইক্রোসফ্ট উইন্ডোজ ৭, ভিসতা বা এক্সপি
ডুয়াল কোর ২.০ গিগাহার্জ প্রোসেসর (বা পেন্টিয়াম ফোর ৩ গিগাহার্জ)
এক্সপি তে ১ জিবি RAM, ভিসতা আর সেভেনে ২ জিবি
১২৮ মেগাবাইট ভিডিও RAM (ইন্টেল HD গ্রাফিক্স ২০০০ এ চলবে)
হার্ডডিস্কে ১১.৪ জিবি জায়গা

আমাদের রেটিং

Gameplay                    9.8     (অসাধারণ, এককথায় অসাধারণ)

Story                              9.0   (স্টোরি সুন্দর ছিল, যদিও কিছু কিন্তু রয়ে গেছে)

Graphics                      9.0   (গ্রাফিস্ক ভাল ছিল)

Sound                           10.0   (ভয়েস অ্যাকটিং বিশ্বমানের, দশে দশ)

Replay Value             8.0   (বারবার খেলতে কেউ চাইবে না, একবার খেলাতেই সব মজা)

Total                              9.2

Advertisements

12 thoughts on “গেম রিভিউ : পোর্টাল ২

Share your thinking

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s