মন টা বড় খারাপ, আমাদের দুই বড় ভাই আর অকাল মৃত্যুতে । কারও এমন অকাল মৃত্যু কখনও মেনে নেয়া জায় কি?

মন টা বড় খারাপ, আমাদের দুই বড় ভাই আর অকাল মৃত্যুতে । কারও এমন অকাল মৃত্যু কখনও মেনে নেয়া জায় কি?
গতকাল সন্ধ্যায় সিলেটের বাদাঘাট এলাকায় বেড়াতে গিয়ে খুন হয় আমদের দুই ভাই।

কেমিক্যাল ইন্জিনিয়ারিং বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র অনীক এবং খায়রুল। তারা বেশ ৮ জন বন্ধুবান্ধব মিলে সেখানে বেড়াতে গিয়ে নদীতে নৌকাভ্রমণ করার সময় নৌকার মাঝির কারসাজিতে এক জায়গায় বেশ কয়েকজন ছিনতাইকারী নৌকায় উঠে। ছিনতাইকারীদের অস্ত্রের মুখে সাথে থাকা মোবাইল এবং টাকা দিয়ে দেয়ার পর কয়েক জনকে তারা ছেড়ে দেয়। তারপর নৌকায় থাকা অনীক এবং খায়রুল ভাইকে ছিনতাইকারীরা নির্মমভাবে মারার এক পর্যায়ে তারা নদীতে পড়ে যায়। এর মধ্যে খায়রুল ভাই সাতার জানতেন । কিন্তু তার মাথায় বাড়ি দেয়াতে তিনি বেশীদুর সাতরে তীরে পৌছাতে পারেননি । পৌছাবার আগেই নদীতে তলিয়ে জান তিনি । আর অনীক ভাই সাতার না জানায় সেখানেই ডুবে জান ।
সন্ধ্যায় খবর পাওয়ামাত্রই ভার্সিটির বিভিন্ন বিভাগের ছাত্ররা ভীড় জমাতে থাকে নদীর পাশে। রাতে অনীক ভাই এর এবং ভোরবেলায় খায়রুল ভাই এর মৃতদেহ পাওয়া যায় । এখন পুরো বিশ্ববিদ্যালয়ে শোকের ছায়া ।
এই দুজনের মৃত্যুর সাথে সাথে বেশ কিছু ঘটনা ঘটায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে সাধারণ ছাত্ররা ।
প্রথমত, গতকাল ঘটনা ঘটার পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ে খবর ছড়িয়ে পড়ে । কিন্তু প্রক্টর অনেক দেরীতে ঘটনাস্থলে পৌছান । তিনি কোন ডুবুরীর ব্যবস্থা করেননি । বলতে গেলে তিনি বিষয়টা সিরিয়াসলি নেননি । ছাত্ররাই নিজেরা ডুবুরীর ব্যবস্থা করে লাশ উদ্ধার করে । প্রশাসনের এ উদাসীনতা চোখে পড়ে সবার ।
সবচেয়ে দু:খজনক ঘটনাটি ঘটে ভোরে একটি লাশ যখন নদী থেকে তোলা হয় তখন । ( নাম উল্লেখ না করে বলছি ) বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক মুখে সিগারেট নিয়ে নদীর পাড়ে ছিলেন । লাশ তোলার সময় তিনি লাশের এক হাত দূরত্বে ছিলেন এবং তার মুখ থেকে নির্গত ধোয়া মৃতদেহের মুখে পড়ে ।
বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এ রকম গা ছাড়া আচরণে ক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়ে ক্যাম্পাসে । সকাল থেকেই ক্যাম্পাসে জড়ো হতে থাকে ছাত্রছাত্রীরা । তারা লাগাতার অবরোধের ডাক দেয় ।
সকালেই ছাত্ররা ক্যাম্পাসে মিছিল করে । প্রথমে ছাত্ররা দাবি করে ক্যাম্পাস থেকে লাশ সরানোর আগেই যেন সুষ্ঠু বিচার এর বেবস্থা করা হয় । পরে তারা এ দাবি থেকে সরে আসে এবং সুষ্ঠু বিচার এর  দাবিতে সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়ক অবরুধ করেন ।


এসময় ছাত্ররা তিন দফা দাবী পেশ করি কর্তপক্ষের কাছে ।
১) প্রক্টরের পদত্যাগ
২) লাশ এর কাছে দারিয়ে ধূমপান কারী ঐ সারের মিডিয়ার সামনে ক্ষমা প্রার্থনা ।
৩) ৪৮ ঘন্টার মধ্যে খুনীদের গ্রেফতার করতে না পারলে লাগাতার ধর্মঘট ।
পরে ছাত্রদের অবরোধের মুখে ভিসি স্যার আসেন এবং ছাত্রদের দাবী মেনে নেন ।
* আগামী তিন দিন ক্যাম্পাসে শোক এবং বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে ।
* ভিসি স্যার এর কথার প্রতি সম্মান জানিয়ে ছাত্ররা সাময়িকভাবে অবরোধ তুলে নিয়েছে ।
* তবে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে খুনি ধরা না পরলে আবার আন্দোলন শুরু হবে।
এই মুহুত্রে আমাদের একটাই দাবি, আমাদের দুই ভাই হত্যার যেন আমরা দ্রুত আবং সুষ্ঠু বিছার পাই।
আর আমরা মহান আল্লাহ্‌র কাছে বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করি।
ছবি গুলো samewhereinblog এর পোস্ট থেকে নেয়া ।
face book a Anik bhai ar profile link:https://www.facebook.com/profile.php?id=100000499973397

face book event : https://www.facebook.com/events/109389962512891/

Advertisements

About j. hossain xitu

nothing special

2 thoughts on “মন টা বড় খারাপ, আমাদের দুই বড় ভাই আর অকাল মৃত্যুতে । কারও এমন অকাল মৃত্যু কখনও মেনে নেয়া জায় কি?

    • bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai bichar chai

Share your thinking

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

w

Connecting to %s